বিশ্বে ধনী বাড়ার হারে শীর্ষ অবস্থানে বাংলাদেশ


ডলার

গত একদশকে বাংলাদেশে প্রতিবছর গড়ে ১৪.৩ শতাংশ হারে ধনাঢ্য ব্যক্তির সংখ্যা বেড়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি গবেষণা সংস্থা৷ এক্ষেত্রে বিশ্ব তালিকায় বাংলাদেশ শীর্ষে অবস্থান করছে৷

যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণা সংস্থা ওয়েলথ এক্স গত ১৪ মে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে৷ এতে গত একদশকে ধনী ব্যক্তির সংখ্যা বৃদ্ধির হারে শীর্ষে থাকা দশটি দেশের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়৷ বাংলাদেশ সেই তালিকায় এক নম্বরে আছে৷

প্রতিবেদন বলছে, এই সময়ে বাংলাদেশে প্রতিবছর গড়ে ১৪ দশমিক তিন শতাংশ হারে ধনাঢ্য ব্যক্তির সংখ্যা বেড়েছে৷ মূলত, যাদের সম্পদের পরিমাণ ৫০ লাখ ডলারের বেশি তাদের তথ্যই এই তালিকায় স্থান পেয়েছে৷ ওয়েলথ এক্স-এর তালিকায় শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে ছয়টিই এশিয়ার৷ তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভিয়েতনাম। এশিয়ার এই দেশটিতে সম্পদশালী ব্যক্তির সংখ্যা গত একদশকে প্রতিবছর বেড়েছে ১৩ দশমিক ৯ শতাংশ হারে৷ এরপর চীন রয়েছে তালিকার তৃতীয় অবস্থানে।

গত একদশকে চীনে ধনী ব্যক্তির সংখ্যা প্রতিবছর বাড়ার গড় হার ছিল ১৩ দশমিক পাঁচ শতাংশ৷ তবে এই সময়ে সবচেয়ে বেশি ধনী ব্যক্তি থাকা বিশ্বের শীর্ষ ৩০ শহরের ২৬টিই ছিল চীনের৷ তালিকায় আফ্রিকার একমাত্র প্রতিনিধি চতুর্থ অবস্থানে থাকা কেনিয়া৷ সেদেশে ১৩ দশমিক এক শতাংশ হারে ধনীর সংখ্যা বেড়েছে৷

এরপর পঞ্চম, ষষ্ঠ, সপ্তম অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে ফিলিপাইন্স (১১ দশমিক ৯ শতাংশ), থাইল্যান্ড (১০ দশমিক ৬ শতাংশ), নিউজিল্যান্ড (আট দশমিক ৭ শতাংশ)। এছাড়া, যুক্তরাষ্ট্র রয়েছে তালিকার অষ্টম অবস্থানে।

গত এক দশকে আমেরিকায় বছরে গড়ে ধনাঢ্য ব্যক্তি বৃদ্ধির হার ছিল আট দশমিক ২ শতাংশ৷ তবে দেশটিতে ৫০ লাখ ডলারের বেশি সম্পদ থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ২০১৯ সালে অন্যান্য দেশের চেয়ে অনেক বেশি ছিল৷

গতবছর বিশ্বের এমন মোট ব্যক্তির ৩৫.৯ শতাংশের বাস ছিল যুক্তরাষ্ট্রে৷এশিয়ার আরেক দেশ পাকিস্তান সাড়ে সাত শতাংশ পরিমাণ ধনী ব্যক্তি নিয়ে তালিকায় নবম স্থানে রয়েছে। তালিকায় দশম অবস্থানে থাকা ইউরোপের একমাত্র প্রতিনিধি দেশ আয়ারল্যান্ডে বছরে ধনী ব্যক্তির সংখ্যা বৃদ্ধির গড় হার ছিল সাত দশমিক ১ শতাংশ৷

ads