চৌদ্দপুরুষকে দিয়ে পকেট কমিটি চলবে না : কাদের


Kader Road Minister

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কারও চৌদ্দপুরুষকে দিয়ে কমিটি ও পকেট কমিটি চলবে না। বরং দুঃসময়ের ত্যাগী কর্মীর মূল্যায়ন করতে হবে। তিনি বলেন, সুসময়ের বসন্তের কোকিলের ভিড়ে যেন দুঃসময়ের কর্মীরা হারিয়ে না যান।

সোমবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে পটুয়াখালীর শহীদ আলাউদ্দিন শিশু পার্কে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সুন্দর পোস্টার, ব্যানার দিয়ে ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের নেতা হওয়া যায় না। আওয়ামী লীগের নেতা হতে হলে অনেক ত্যাগ শিকার করতে হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিগত ৪৪ বছরে দেশের সবচেয়ে সৎ, দক্ষ ও জনপ্রিয় রাজনীতিক হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আ. লীগকে বাঁচাতে হবে, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে আ. লীগকে বাঁচাতে হবে। আর আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে দলের জন্য ত্যাগী ও নিবেদিত প্রাণ কর্মীদের বাঁচাতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাঁচাতে হলে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে বার বার ক্ষমতায় ফিরিয়ে আনতে হবে। দেশের উন্নয়ন ও অর্জনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন- সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও পটুয়াখালী-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহজাহান মিয়া।

সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন—কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আফজাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি বাহাউদ্দিন নাছিম, আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন—সাবেক চিফ হুইপ ও পটুয়াখালী-২ আসনের সংসদ সদস্য আ স ম ফিরোজ, পটুয়াখালী-৩ আসনের সংসদ সদস্য এস এম শাহজাদা, পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান, সংরক্ষিত আসনের এমপি কাজী কানিজ সুলতানা হেলেন, জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের অসংখ্য নেতাকর্মী।

জীবন/আওয়াজবিডি