চীনে অবস্থান করা বাংলাদেশিদের ফেরাতে রেজিস্ট্রেশন শুরু


পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার

কয়েকদিনের মধ্যেই চীনে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। তিনি বলেছেন, ‘যারা ফিরতে চান এরই মধ্যে তাদের রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়ে গেছে।’

মঙ্গলবার নিজের ফেসবুক পেজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি বলেছেন, ‘ঘরের মধ্যে একনাগাড়ে থাকতে বলাটাই এক ধরনের ‘কোয়ারেন্টাইন’ ব্যবস্থা। ১৪ দিন সর্বোচ্চ, যার মধ্যে কম বেশী ৭ দিন পার হয়ে গেছে। কি ধরনের বিমান আমরা পাঠাবো তা জানতে চেয়েছে চীন। যারা ফিরতে চান তাদের রেজিষ্ট্রেশন শুরু হয়ে গেছে। আমরা দুই একদিনের মধ্যেই সঠিক ধারণ ক্ষমতার বিমানটি নির্ধারণ করতে পারবো ফিরে আসতে চাওয়া মানুষের সংখ্যার মাধ্যমে।

আমি অনুরোধ করবো, যে কয়েকটা দিন ফিরিয়ে আনতে সময় লাগবে সেই সময় পর্যন্ত চীন সরকারের প্রতিটি নির্দেশনা মেনে চলার জন্য। এতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে ঠিকই, কিন্তু নিজের জীবনের স্বার্থে এবং ভাইরাসটি যেনো কারো মাধ্যমে না ছড়ায় তা নিশ্চিত করতে চীনের স্বাস্থ্য বিষয়ক নির্দেশনাগুলো মেনে চলতেই হবে।

আমাদের দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পালাক্রমে ২৪ ঘণ্টা তাদের সাথে যোগাযোগ রাখছেন এবং অতি প্রয়োজনীয় বিষয়গুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে সমাধানের চেষ্টা করছেন। আমরা ঢাকা থেকে দূতাবাসের কার্যক্রমের সাথে সমন্বয় করছি এবং তদারকি করছি।’

সার্স ভাইরাসের ভেকসিন আবিষ্কার করতে ‘জিন সিকুয়েন্স’ থেকে মানব দেহে পরীক্ষা করতে সময় লেগেছিলো ২০ মাস।  করোনা ভাইরাসের ‘জিন সিকুয়েন্স’ ইতোমধ্যে করে ফেলেছেন চীনের বিজ্ঞানীরা (রয়টার্স জানিয়েছে আজকে)। ভেকসিন তৈরী করে তা মানবদেহে পরীক্ষা করতে সর্বোচ্চ সময় লাগবে ৩ মাস, যার মধ্যে ১ মাস প্রায় চলে গেছে।

সার্স এর পরে চীন এই সম্ভাব্য ঝুঁকির জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে, যার প্রভাব আমরা দেখছি সর্বোচ্চ সতর্কতামুলক ব্যবস্থায়। এই কথাগুলো তাদের জন্য যারা খুব শংকার মধ্যে আছেন চীনে। সবাই ভালো থাকবেন। আল্লাহতাআলা সহায় হউন।’

এসএম/আওয়াজবিডি

ads